বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন
  • ৭ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১০ ডিসেম্বর ২০১৭

ঝালকাঠিতে অর্থনৈতিক জোন গড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে : শিল্পমন্ত্রী


প্রকাশন তারিখ : 2017-12-10

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, মোংলা ও পায়রা এবং পদ্মাসেতুকে কেন্দ্র করে ঝালকাঠিতে একটি অর্থনৈতিক জোন গড়ে তোলার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে।
তিনি বলেন, ‘পদ্মাসেতু ও পায়রা বন্দরের কাজ শেষ হলে দক্ষিণাঞ্চলে ব্যপক শিল্প বিপ্লব ঘটবে। ব্যবসায়ীদের পদ্মাসেতু এবং পায়রা বন্দরের কথা মাথায় রেখে শিল্প-প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে হবে। ইতোমধ্যে মোংলা বন্দরের কারণে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে বেশ কিছু শিল্পাঞ্চল গড়ে উঠেছে। যেহেতু ঝালকাঠি জেলা মোংলা ও পায়রা বন্দরের মধ্যখানে সে কারণে এখানে এই দুই বন্দর এবং পদ্মাসেতুকে কেন্দ্র করে একটি অর্থনৈতিক জোন গড়ে তোলার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে।’
জেলা চেম্বার অব কমার্স এর দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে শনিবার শিল্পমন্ত্রী প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছিলেন।
চেম্বার অব কমার্স সভাপতি মাহাবুবু হোসেনের সভাপতিত্বে শহরের সানাই কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হক, পুলিশ সুপার মো. জোবায়েদুর রহমান, জেলা পরিষদ প্রশাসক সরদার মো. শাহ-আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. সুলতান হোসেন খান, পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদার ও চেম্বার অব কমার্স সহ-সভাপতি সরদার শামসুল ইকরাম পিরু।
শিল্পমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ প্রতিহিংসার রাজনীতি করে না। খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আদালতে জিয়া অর্ফানেজ ট্রাস্টের দুর্নীতির যে মামলা চলছে তা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দায়ের করা, শেখ হাসিনার সরকারের নয়।
তিনি বলেন, সরকার একটি সুষ্ঠু নির্বাচন চায়। ২০১৪ সালে বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিলে তারা প্রমাণ পেতো শেখ হাসিনার অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে। কারণ বাংলাদেশের ইতিহাসে একমাত্র শেখ হাসিনাই ২০০১ সালে শান্তিপূর্ণভাবে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করেছিল। এর পূর্বে বা পরে কোন নেতা বা নেত্রী স্বেচ্ছায় ক্ষমতা ছাড়েনি।
এর আগে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস উদযাপন উপলক্ষে ঝালকাঠিতে জয়িতা অন্বেষণে জেলা পর্যায়ে নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের সম্মাননা প্রদান ও আলোচনা সভার প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।